উত্তর আমেরিকা     সংবাদ

মুসলিম নারীর প্রতি বিদ্বেষমূলক আচরণ ট্রাম্প–ভক্তের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগ

উত্তর আমেরিকা অফিস | ১৭ মার্চ ২০১৭, ১১:০১

নিউইয়র্কের জন এফ কেনেডি বিমানবন্দরে কর্মরত হিজাবধারী এক মুসলিম নারীর সঙ্গে বিদ্বেষমূলক আচরণ করার অভিযোগ আনা হয়েছে ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভক্ত রুবিন রোডেস নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। কুইন্স ডিস্টিক্ট অ্যাটর্নি রিচার্ডস ব্রাউন বৃহস্পতিবার আদালতে তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন।
রুবিন রোডেস (৫৭) ম্যাচুচেস্টার এলাকার অরচ্যাস্টার্স শহরের বাসিন্দা। অভিযোগে বলা হয়েছে, গত জানুয়ারি মাসে জন এফ কেনেডি বিমানবন্দরের ডেল্টা এয়ারলাইনস স্কাউ লাউঞ্জে কর্মরত অবস্থায় হিজাবধারী নারী রাবেয়া খান বিদ্বেষমূলক আচরণের শিকার হন। অভিযুক্ত রোডেস আরোবা থেকে অবকাশ শেষে ফিরছিলেন। কর্মরত অবস্থায় হিজাব পরিহিত রাবেয়া খানকে তিনি বলেছেন, তুমি কি ঘুমাচ্ছ, তুমি কি প্রার্থনা করছ, তুমি কি করছ?
এ কথায় ভয় পেয়ে রাবেয়া খান দ্রুত নিজের কক্ষ থেকে বেরিয়ে যেতে চাইলে রোডেস তাঁকে পাঁ দিয়ে আটকে দেন। পরে রাবেয়া খানের পায়ে লাথি মারেন অভিযুক্ত রোডেস। একপর্যায়ে রোডেস মোনাজাতের ভঙ্গিমায় বসে পড়ে বলতে থাকেন, ‘ট্রাম্প এসে গেছেন, তিনি তোমাদের সবাইকে তাড়াবেন। জার্মানি, বেলজিয়াম ও ফ্রান্সের দিকে তাকিয়ে দেখ, কী হচ্ছে।’
বিদ্বেষমূলক চেঁচামেচির একপর্যায়ে পুলিশ উপস্থিত হলে রোডেস চিৎকার করে বলতে থাকেন, ‘নিয়ন্ত্রণহীন আচরণের জন্য আমাকে জেল যেতে হবে।’
আটকের পর রোডেস আদালত থেকে ৫০ হাজার ডলারে জামিন পেয়েছেন। আগামী জুন মাসে তাঁকে আবার আদালতে হাজিরা দিতে হবে।
কুইন্স ডিস্টিক্ট অ্যাটর্নি রিচার্ডস ব্রাউন বলেছেন, কারও প্রতি বিদ্বেষমূলক আচরণ বরদাশত করা হবে না। অপরাধীকে অবশ্যই বিচারের মুখোমুখি দাঁড় করানো হবে।

পাঠকের মন্তব্য (০)

মন্তব্য করতে লগইন করুন