আন্তর্জাতিক     সংবাদ

ম্যার্কেলের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী হবেন মার্টিন শুল্জ

এএফপি | ২১ মার্চ ২০১৭, ০০:৫৪  

মার্টিন শুল্‌জজার্মানিতে আগামী সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠেয় সাধারণ নির্বাচনে চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেলের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী হবেন সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এসপিডি) মার্টিন শুল্জ। গত রোববার বার্লিনে এসপিডির সম্মেলনে শুল্জ সর্বসম্মতিতে নেতা নির্বাচিত হন। এর মাধ্যমে তিনি বামপন্থী দলটির চ্যান্সেলর প্রার্থী হিসেবে আনুষ্ঠানিক মনোনয়ন পেলেন।
৬১ বছর বয়সী মার্টিন শুল্জ সাম্প্রতিক জনমত জরিপে রক্ষণশীল নেতা আঙ্গেলা ম্যার্কেলের তুলনায় এগিয়ে রয়েছেন। শুল্জ বলেছেন, তাঁর দল সেপ্টেম্বরের নির্বাচনে জয়ী হলে অভিবাসনবিরোধী ডানপন্থীদের ‘লোকরঞ্জনবাদের’ বিরুদ্ধে লড়াই করবে। তিনি ইউরোপের ঐক্যের বিরুদ্ধবাদীদের নিন্দা করেছেন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ‘বর্ণবাদী’ কথাবার্তারও ঘোর বিরোধী জার্মানির এ নেতা।
সর্বশেষ ২০১৩ সালের নির্বাচনে এসপিডি ম্যার্কেলের ক্রিস্টিয়ান ডেমোক্রেটিক ইউনিয়নের (সিডিইউ) সঙ্গে ‘গ্র্যান্ড কোয়ালিশন’ সরকারের শরিক হয়েছিল। দলটির আশা, ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সাবেক প্রেসিডেন্ট শুল্জ ভবিষ্যতে সিডিইউকে ছাড়াই দেশের নেতৃত্ব দিতে পারবেন। জনমত জরিপে ইঙ্গিত মিলেছে, সিডিইউর চেয়ে সোশ্যাল ডেমোক্র্যাটরা এখনো পিছিয়ে। তবে ব্যক্তিগত ভাবমূর্তি বিবেচনায় এই মুহূর্তে ম্যার্কেলের চেয়ে শুল্জ এগিয়ে। এবারের নির্বাচনে ম্যার্কেল চতুর্থ মেয়াদে চ্যান্সেলর পদের জন্য লড়বেন।
রোববার দলের সর্বস্তরের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে মার্টিন শুল্জ ইউরোপসহ পশ্চিমা বিশ্বে লোকরঞ্জনবাদের উত্থানের সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, গড়পড়তা শ্রমিক ও ধনীদের মধ্যে ব্যবধান বৃদ্ধির কারণেই এ পরিস্থিতি হয়েছে।
সিডিইউর নেত্বত্বাধীন সরকার কর কমিয়ে সামরিক ব্যয় বাড়িয়েছে। শুল্জ এমন পদক্ষেপের সমালোচনা করেছেন। ট্রাম্পের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে তিনি বলেন, মার্কিন প্রেসিডেন্টের কথাবার্তা ‘নারীবিদ্বেষী, অগণতান্ত্রিক ও বর্ণবাদী’।

 

পাঠকের মন্তব্য (০)

মন্তব্য করতে লগইন করুন