আন্তর্জাতিক     সংবাদ

ট্রাম্প সম্পর্কে জানতে প্লেবয়ে সাক্ষাৎকার পড়েছিলেন ম্যার্কেল

অনলাইন ডেস্ক | ২০ মার্চ ২০১৭, ২২:৫০

আঙ্গেলা ম্যার্কেল ও ডোনাল্ড ট্রাম্পযুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে নিজের প্রথম বৈঠকের আগে বেশ ভালোই প্রস্তুতি নিয়েছিলেন জার্মানির চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল। এ জন্য ট্রাম্পের ভাষণ থেকে শুরু করে গণমাধ্যমে প্রকাশিত সাক্ষাৎকার পড়েছেন ম্যার্কেল। ইন্ডিপেনডেন্টের খবরে বলা হয়েছে, ২৭ বছর আগে প্লেবয় ম্যাগাজিনে প্রকাশিত ট্রাম্পের একটি সাক্ষাৎকার পড়েছেন ম্যার্কেল।

জার্মানির এক কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন, ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠকের আগে নানাভাবে প্রস্তুতি নিয়েছেন ম্যার্কেল। বিশদভাবে জানতে ট্রাম্পের বক্তব্য, সাক্ষাৎকার পড়েছেন ও দেখেছেন। এর মধ্যে ১৯৯০ সালে প্লেবয় ম্যাগাজিনে দেওয়া ট্রাম্পের একটি সাক্ষাৎকারও পড়েছেন ম্যার্কেল। এখন ডোনাল্ড ট্রাম্প যা যা বিতর্কিত নীতি ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করছেন, তার প্রাথমিক ধারণা প্লেবয়ের ওই সাক্ষাৎকারে রয়েছে।

এ ছাড়া ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে, জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে এবং কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর সঙ্গে ট্রাম্পের সাক্ষাৎকারগুলোও পর্যালোচনা করে ম্যার্কেলকে ব্রিফ করেছেন জার্মানির কর্মকর্তারা।

দেশটির একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা একটি বার্তা সংস্থাকে গত সপ্তাহে বলেছেন, ‘আমরা জানি, ট্রাম্প দীর্ঘ সময় কোনো বিষয় শুনতে পছন্দ করেন না এবং বিস্তারিত কোনো ঘটনায় মগ্ন হতে চান না। সে বিষয়টি মাথায় রেখে আমরা জার্মান চ্যান্সেলরের সফরের প্রস্তুতি নিয়েছি।’

গত শুক্রবার হোয়াইট হাউসে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প ও আঙ্গেলা ম্যার্কেল। সংবাদ সম্মেলনের পর তাঁরা করমর্দন করেছিলেন। তবে হোয়াইট হাউসের ওভাল কার্যালয়ে গণমাধ্যমের সামনে ম্যার্কেল দ্বিতীয়বার করমর্দনের প্রস্তাব দিলে ট্রাম্প এমন ভাব করেন যেন কিছুই শুনতে পাচ্ছেন না। দ্বিতীয়বার ম্যার্কেল করমর্দনের প্রস্তাব দেন। এবারও ট্রাম্প একই আচরণ করেন। এরপর কিছুটা অপ্রস্তুত অবস্থায় পড়েন ম্যার্কেল। এরপরও ট্রাম্প নির্বিকার ছিলেন। অল্প সময়ে পরিস্থিতি সামলে সাংবাদিকদের দিকে তাকিয়ে স্মিত হাসেন ম্যার্কেল। এ নিয়ে গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে নানা রকম ঠাট্টা-বিদ্রূপ শুরু হলে ট্রাম্পের মুখপাত্র করমর্দনের প্রস্তাব ট্রাম্প নাকচ করেননি বলে দাবি করেন।

ডোনাল্ড ট্রাম্প মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর এটাই ছিল জার্মানির চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেলের প্রথম যুক্তরাষ্ট্র সফর। অভিবাসী, বাণিজ্যসহ বিভিন্ন ইস্যুতে ট্রাম্প-ম্যার্কেলের দ্বিমত রয়েছে। বৈঠকে দুজনেই এসব ইস্যুতে একে অন্যের সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন।

আরও পড়ুন
ম্যার্কেলের সঙ্গে এ কেমন আচরণ ট্রাম্পের!
করমর্দনের প্রস্তাব শোনেননি ট্রাম্প!

 

 

পাঠকের মন্তব্য (০)

মন্তব্য করতে লগইন করুন