আন্তর্জাতিক     সংবাদ

সবচেয়ে সুখী নরওয়ে, বাংলাদেশ ১১০তম

অনলাইন ডেস্ক | ২০ মার্চ ২০১৭, ২০:৩৩

বিশ্বের সবচেয়ে সুখী দেশের তালিকায় এবার শীর্ষ অবস্থানে আছে স্ক্যান্ডিনেভিয়ান দেশ নরওয়ে। প্রতিবেশী দেশ ডেনমার্ককে পেছনে ফেলে এবার তালিকার এক নম্বরে উঠে গেল দেশটি। আর ১৫৫টি দেশের মধ্যে সুখী দেশ হিসেবে বাংলাদেশের অবস্থান ১১০তম।

আজ সোমবার বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, জাতিসংঘের সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট সলিউশনস নেটওয়ার্ক (এসডিএসএন) থেকে প্রকাশিত ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস রিপোর্ট ২০১৭-তে এ তথ্য জানানো হয়েছে। ২০ মার্চ আন্তর্জাতিক সুখ দিবস উপলক্ষে পঞ্চমবারের মতো আজ এই প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়। ২০১২ সাল থেকে জাতিসংঘ এ প্রতিবেদনটি প্রকাশ করে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, নরওয়ের পরেই তালিকায় থাকা দেশগুলোর মধ্যে ডেনমার্ক দ্বিতীয় অবস্থানে, আইসল্যান্ড তৃতীয়, সুইজারল্যান্ড চতুর্থ, ফিনল্যান্ড পঞ্চম, নেদারল্যান্ডস ষষ্ঠ, কানাডা সপ্তম, নিউজিল্যান্ড অষ্টম, অস্ট্রেলিয়া নবম ও সুইডেন দশম অবস্থানে আছে। গত বছর ডেনমার্ক প্রথম অবস্থানে ছিল।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, তালিকার একদম শেষে অর্থাৎ সুখী দেশের দিক থেকে ১৫৫তম অবস্থানে আছে মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্র। আরও কম সুখী দেশগুলোর মধ্যে আছে সিরিয়া (১৫২তম), ইয়েমেন (১৪৬তম) ও দক্ষিণ সুদান (১৪৭তম)। এ ছাড়া তালিকায় নেপালের অবস্থান ৯৯তম, বাংলাদেশ ১১০তম, মিয়ানমার ১১৪তম, শ্রীলঙ্কা ১২০তম ও ভারত ১২২তম অবস্থানে রয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, এ বছর যুক্তরাষ্ট্র এই তালিকায় গত বছরের চেয়ে এক ধাপ পিছিয়ে গেছে। এবার যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান ১৪। তবে এবার চার ধাপ এগিয়েছে যুক্তরাজ্য, দেশটির অবস্থান ১৯তম। তবে বাংলাদেশে সুখের কোনো হেরফের হয়নি। দেশটির অবস্থান আগের মতোই রয়েছে। এ ছাড়া জার্মানি ১৬তম, সিঙ্গাপুর ২৬তম ও ফ্রান্স ৩১তম অবস্থানে রয়েছে।

এসডিএসএনের পরিচালক ও জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ উপদেষ্টা জেফ্রে স্যাকস এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘যেসব দেশে সমৃদ্ধির মধ্যে ভারসাম্য আছে, অর্থাৎ যেসব দেশে সমাজের চূড়ান্ত পর্যায়ের আস্থা আছে, অসমতা কম ও সরকারের প্রতি জনগণের পূর্ণ আস্থা আছে—সেসব দেশ সাধারণ মাপকাঠিতে সুখী দেশ।’

প্রতিবেদনে বলা হয়, বিশ্বের সুখী দেশের এই তালিকাটি তৈরি করতে ছয়টি মানদণ্ডকে বিবেচনায় নেওয়া হয়। এই ছয়টি মানদণ্ড হলো মোট দেশজ উৎপাদন, স্বাস্থ্যকর জীবনের প্রত্যাশা, স্বাধীনতা, উদারতা, সামাজিক সমর্থন ও দুর্নীতিবিহীন সরকার ও ব্যবসা।

পাঠকের মন্তব্য (১২)

  • hidden

    আমরা আমরা নিয়েই তো সরকার, সমাজ সবকিছু। কাজেই আমরা নিজেরাই খারাপ তাই আমাদের থেকে বের হয়ে আসা সবকিছুই খারাপ ছাড়া আর কি হবে?
     
  • abir

    abir

    খবরটা পড়ে অসুখী হইনি !
     
  • mahfuza bulbul

    mahfuza bulbul

    এদেশে কিছু মানুষ সবদিক দিয়ে চূড়ান্ত সুখে আছে। তারা এখন জোরেশোরে আওয়াজ দিবে।
     
  • এম হোসেইন

    এম হোসেইন

    ভারত (১২২তম), শ্রীলংকাও (১২০তম) বাংলাদেশের পেছনে।
     
  • রাজিব

    রাজিব

    বাস্তবতা বাদ দিয়ে যারা চেতনার মধ্যে সুখ খুঁজে তারা আজীবন এমনই থাকবে !
     
  • sujon

    sujon

    এই রিপোর্ট বোগাস আর রাবিশ, এই রিপোর্ট এ খালেদা আর ইউনুসের হাত আছে ।
     
    • Shapnik Roy

      Shapnik Roy

      @ sujon, কেন দাদা আপনি আগ বাড়িয়ে হানিফ, ইনু, কামরুল আর হাছান সাহেবদের কাজ টা করে দিলেন। তাদে কাজ তো কিছু একটা করতে হবে ... তাদের জন্য এটা রেখে দিন দয়া করে। ভবিষ্যতে এই ভুল যেন আর করবেন না। আর করলেও নামটা গোপন রাখবেন। কারন বলা তো যায় না এই বেয়াদবীর জন্য না আবার..............
       
  • Najim Ahmed- KSA.

    Najim Ahmed- KSA.

    বাংলাদেশে অভাব অনটন রাজনীতিবিদদের বানানো। ওদেরকে ঠিক করতে পারলে বাংলাদেশের মান ২০ এর নিচে চলে আসবে। তবে, আশার কথা বরতমানে যারা দেশ শোষণ করছে তারা বেশিরভাগই আগামি ১০/২০ বছরের মধ্যেই মরে যাবে আর দেশ ওদের হাত থেকে নতুন নেতাদের হাতে এলেই তড়িৎ গতিতে এগুবে। তবে, অবশ্যই, ঐসব ফামিলির লোকদেরকে কোনভাবেই রাজনীতিতে আসতে দেওয়া যাবে না।
     
  • Mamun Hasan

    Mamun Hasan

    বাংলাদেশের মানুষের উদারতা, সামাজিক সমর্থনের চরম অভাব রয়েছে । আর বেশিরভাগ ফামিলিতেই দুর্নীতিপরায়ণ মানুষ রয়েছে । আর বেশিরভাগ মানুষ বিশেষ করে গ্রামের মানুষ সময়ের মূল্যায়ন করে না । দেশকে সুখী দেশ করতে হলে আগে প্রত্যেকটা পরিবার থেকে দুর্নীতি দূর করতে হবে । শুধু সরকারের দোষ দিয়ে লাভ নেই ।
     
  • Mr.Rupom

    Mr.Rupom

    পৃথিবীর সব চেয়ে সুখী মানেষের দেশ আমাদেরই বাংলাদেশ।
     
  • Pratik

    Pratik

    দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশ ২য় স্থানে , ভারতেরও আগে
     
    • hidden

      দক্ষিণ এশিয়ায় ১ম স্থানে কোন দেশ?
       
মন্তব্য করতে লগইন করুন