দূর পরবাস     সংবাদ

জেদ্দায় বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালন

বাহার উদ্দিন, জেদ্দা (সৌদি আরব) থেকে | ১৯ মার্চ ২০১৭, ১৪:৩২

জেদ্দায় বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালনের একটি দৃশ্যসৌদি আরবের জেদ্দায় যথাযথ মর্যাদায় পালিত হয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস। এ উপলক্ষে জেদ্দার বাংলাদেশ কনস্যুলেট গত শুক্রবার (১৭ মার্চ) বিকেলে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানমালায় ছিল আলোচনা, রচনা ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা ও ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প। এই প্রথমবারের মতো জেদ্দা কনস্যুলেটে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের উপস্থিতিতে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প পরিচালনা করা হয়।

কোরআন থেকে তিলাওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু করা হয়। এরপর রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করে শোনান কাউন্সেলর (শ্রম) আমিনুল ইসলাম, কাউন্সেলর আজিজুর রহমান, প্রথম সচিব মোহাম্মদ কামরুজ্জামান ও কনসাল (হজ) জহিরুল ইসলাম।
জেদ্দায় বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালনের একটি দৃশ্যঅনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কনস্যুলেটের কনসাল জেনারেল এফ এম বোরহান। কনস্যুলেটের কর্মকর্তা-কর্মচারী, জেদ্দা-মক্কার বাংলাদেশি বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা-কর্মীসহ বাংলা ও ইংরেজি স্কুলের শিক্ষার্থীরা এই আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কাউন্সেলর আলতাফ হোসেন।
এফ এম বোরহান তার বক্তব্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনী তুলে ধরেন। এ ছাড়া বাংলা ও ইংরেজি স্কুলের শিক্ষার্থী আবিদা দেলোয়ার ও আবদুল্লাহ রাশেদ বঙ্গবন্ধুর জীবনের নানা দিক নিয়ে আলোচনা করে। শিক্ষার্থীদের আলোচনা পর্ব যৌথভাবে পরিচালনা করে জাহারা হক ও সামিয়া আবদুল মালেক।
জেদ্দায় বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালনের একটি দৃশ্যরচনা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের বাংলা ও ইংরেজি মাধ্যমের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে। প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের হাতে ক্রেস্ট ও সনদ তুলে দেন এফ এম বোরহান উদ্দিন ও মোহাম্মদ মাকসুদুর রহমান।
রচনা প্রতিযোগিতায় পুরস্কার পেয়েছে জাহারা আবেদিন, সাদিয়া তানাজ, মাহমুদা এমদাদ, শাফিয়া কবির তিথি, ইব্রাহিম ইসলাম, মারিয়া আজাদ, তানবীর হোসেন আবির ও সামিয়া আবদুল মালেক।
চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় পুরস্কার পেয়েছে মিরা বিনতে রাজীব, রনক আল আমিন, নওশিন জামান, ইশরাক হোসেন, প্রভা হোসেন ও সাইমা সাদিয়া।
সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় প্রবাসী শিল্পীরা অংশগ্রহণ করেন। সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন সারতাজুল আলম, ফজলুল কবির, মিজানুর রহমান, মাহফুজুর রহমান ও রেজায়ুল করিম প্রমুখ।
এ ছাড়া শুক্রবার সকালে বাংলাদেশি ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত দুটি স্কুলে যথাযথ মর্যাদায় পালিত হয়েছে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস। বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের বাংলা ও ইংরেজি মাধ্যমের অনুষ্ঠানমালায় ছিল জাতীয় পতাকা উত্তোলন, কেক কাটা, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক পরিবেশনা।
জেদ্দায় বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালনের একটি দৃশ্যবাংলা মাধ্যমের অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন স্কুলের বাংলা মাধ্যমের পরিচালনা পরিষদ চেয়ারম্যান মারশেল কবির। প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ কনস্যুলেটের কনসাল (শিক্ষা ও শ্রম) কে এম সালাহউদ্দিন।
ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন স্কুলের ইংরেজি মাধ্যমের পরিচালনা পরিষদ চেয়ারম্যান কাজী নেয়ামুল বশির। প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ কনস্যুলেটের কাউন্সেলর আলতাফ হোসেন।

পাঠকের মন্তব্য (০)

মন্তব্য করতে লগইন করুন