দূর পরবাস     সংবাদ

ইসলামাবাদে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী পালন

মুহম্মদ ইকবাল হোসেন, ইসলামাবাদ (পাকিস্তান) থেকে | ১৮ মার্চ ২০১৭, ১৮:৫১

ইসলামাবাদে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করছেন তারিক আহসানবঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৮তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস যথাযথ উৎসাহ-উদ্দীপনা ও মর্যাদার সঙ্গে পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে বাংলাদেশ হাইকমিশনে পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল ১৭ মার্চ শুক্রবার চ্যান্সারি প্রাঙ্গণ রঙিন বেলুন ও অন্যান্য ঝলমলে সামগ্রী দিয়ে সাজানো হয় এবং সন্ধ্যায় ভবন আলোকসজ্জিত করা হয়।

দিবসটি পালন উপলক্ষে সন্ধ্যায় চ্যান্সারিতে এক আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানমালার সূচনা হয়। পাকিস্তানে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার তারিক আহসান বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন করেন।
ইসলামাবাদে বাংলাদেশ হাইকমিশনে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনের কেক কাটার দৃশ্যহাইকমিশনের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী ও তাদের পরিবারের সদস্য, প্রবাসী বাংলাদেশি নাগরিকেরা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। শিশুরাও বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে তারিক আহসান শিশুসহ সকলকে সঙ্গে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকীর কেক কাটেন। এরপর, দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী প্রদত্ত বাণী পাঠ করা হয়।
আলোচনা সভায় তারিক আহসান বঙ্গবন্ধুর স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন এবং শিশুদের জাতীয় শিশু দিবসের শুভেচ্ছা জানান। বঙ্গবন্ধুর শৈশবকালের কিছু ঘটনার বর্ণনা করে তিনি তাঁর অসাধারণ চারিত্রিক গুণাবলি বিশেষত তাঁর সাহস, সহমর্মিতা, আত্মমর্যাদাবোধ, দৃঢ়সংকল্পবদ্ধ, বিচক্ষণতা, সরলতা ও সততার কথা তুলে ধরেন। তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করার দায়িত্ব কাঁধে তুলে নেওয়ার লক্ষ্যে নিজেদের যথাযথভাবে প্রস্তুত করতে শিশুদের প্রতি আহ্বান জানান।
অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিচ্ছেন তারিক আহসানজাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশি শিশুরা হাইকমিশন কর্তৃক আয়োজিত ‘বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনে বঙ্গবন্ধুর অবদান’ বিষয়ে রচনা লেখা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। এ ছাড়া শিশুরা বঙ্গবন্ধুর ওপর রচিত কবিতা ও ছড়া আবৃত্তি এবং দেশাত্মবোধক নৃত্য পরিবেশন করে।
প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী শিশুদের মধ্যে তারিক আহসান ও তার সহধর্মিণী পুরস্কার ও সনদ বিতরণ করেন।
পরিশেষে, বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের ওপর নির্মিত একটি প্রামাণ্য চলচ্চিত্র প্রদর্শন এবং অনুষ্ঠান শেষে অতিথিদের মাঝে বাংলাদেশি খাবার পরিবেশন করা হয়।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে নৃত্য পরিবেশন করছে বাংলাদেশি শিশুরামুহম্মদ ইকবাল হোসেন: কাউন্সেলর (প্রেস), বাংলাদেশ হাইকমিশন, ইসলামাবাদ, পাকিস্তান।

পাঠকের মন্তব্য (০)

মন্তব্য করতে লগইন করুন