বাংলাদেশ     সংবাদ

ঘরের বারান্দায় বিদেশি কচ্ছপ

সাবিনা ইয়াসমিন | ২১ মার্চ ২০১৭, ০২:২৫  

তাজমহল রোডের একটি বাড়িতে এসেছে হলুদ–সবুজ ডোরাকাটা কচ্ছপ l প্রথম আলোঅযাচিত অতিথির মতো হাজির হয়েছে প্রাণীটি। রাজধানীর মোহাম্মদপুরের তাজমহল রোডের এক বাড়িতে পাওয়া গেল তাকে। সে এক সবুজাভ হলুদ রঙের এক ছোট্ট কচ্ছপ। গত রোববার বিকেলে একতলা বাড়িটির বারান্দায় গুটিগুটি পায়ে হেঁটে যেতে দেখা যায় কচ্ছপটিকে। বাড়ির গৃহিণী লাইজু বেগম কচ্ছপটি দেখে অবাক। ভেবেই পাচ্ছিলেন না ওটি এল কী করে!
আকারে ছোট্ট। সাকল্যে ৫ ইঞ্চি লম্বা। মুখ, পা, পিঠে হলুদের ভেতর সবুজ কালো রেখার ডোরাকাটা। মুখের দুপাশে একটু করে লাল রঙের টান। বেশ চমৎকার দেখতে। ছেলের সাহায্য নিয়ে কচ্ছপটিকে ধরে ফেলেন লাইজু বেগম। বাড়ির মুরগি রাখার খাঁচায় তুলে রাখলেন। তারপর খবর দিলেন প্রথম আলোকে।
ছবি তোলা হলো কচ্ছপটির। লাইজু বেগম বললেন, ‘প্রথম দেখে একটু ভয়ই পেয়েছিলাম। এই কচ্ছপটি একটু আলাদা রকমের। এর এটা ছোট্ট লেজও আছে। কোথা থেকে এল জানি না। আমরা এটি বাড়িতে রাখতে চাই না। চিড়িয়াখানা বা বন বিভাগের কেউ নিতে চাইলে দিয়ে দেব।’
কচ্ছপটি সম্পর্কে জানতে চাওয়া হয়েছিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের বন্য প্রাণী প্রজনন ও সংরক্ষণ কেন্দ্রের অধ্যাপক আ ন ম আমিনুর রহমানের কাছে। তিনি জানান, লাল হলুদ ডোরাকাটা এই কচ্ছপের নাম ‘ইয়োলো বেইল্ড স্লাইডার’। এটি আমাদের দেশের প্রজাতি নয়। যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা থেকে দক্ষিণ-পূর্ব ভার্জিনিয়ার মৌসুমি জলাভূমি, চলমান নদী কিংবা স্থায়ী পুকুরে একই কচ্ছপদের দেখা পাওয়া যায়। এরা সাধারণত ৫ থেকে ১৩ ইঞ্চি পর্যন্ত লম্বা হতে পারে। ত্বক, ঘাড় ও পায়ের নিচে হলুদ ডোরাকাটা, সঙ্গে জলপাই সবুজ ডোরাকাটা থাকে। পোষা প্রাণী হিসেবে এই কচ্ছপ আমেরিকানদের কাছে খুব জনপ্রিয়। বাংলাদেশেও অনেকে এই কচ্ছপ পোষেন। পোষা প্রাণীর দোকানে পাওয়া যায়। তাঁর ধারণা, কচ্ছপটি ওই এলাকার আশপাশের কোনো বাড়িতে পুষতেন। হয়তো কোনোভাবে সেখান থেকে বের হয়ে এসেছে। তবে প্রকৃতিতে এসব কচ্ছপ বেশি সংখ্যায় ছড়িয়ে পড়লে তা ক্ষতিকর হয়ে উঠতে পারে।

পাঠকের মন্তব্য (০)

মন্তব্য করতে লগইন করুন